1. info@www.prothomdhaka24.com : প্রথম ঢাকা :
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৮:১৪ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
গোবিন্দগঞ্জে অটোচালক দুলা মিয়া হত্যার মূল আসামি গ্রেফতার ঈদে চুরির সতর্কতায় ও নিরাপত্তা দিতে ঢাকা কেরানীগঞ্জ পুলিশ । টেকনাফে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের আগুনে পুড়ে ছাই বসত ঘর উখিয়া পালংখালীর জামতলী বাজার হতে র‌্যাবের হাতে অস্ত্র-গুলিসহ এক আরসা সন্ত্রাসী আটক। রাজধানীর মতিঝিল এলাকা হতে আনুমানিক ছয় লক্ষাধিক টাকা মূল্যমানের হেরোইনসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ জেলার সেরা সম্মাননা পেলেন পানছড়ির থানার ওসি শফিউল আজম ঘোলারচরে বিজিবির অভিযানে নৌকার পাটাতনের নীচ থেকে ৩০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার, আটক-১ মায়ানমারে আভ্যন্তরীন যুদ্ধে ব্যাপক খাদ্যসংকট এপার থেকে পাচার হচ্ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীওপার থেকে আসছে ভোলা জেলার লালমোহন এলাকায় চাঞ্চল্যকর পারভিন বেগম (৩৭) হত্যাকান্ডের পলাতক প্রধান আসামি মোঃ রিপনসহ হত্যাকান্ডে সরাসরি জড়িত ০৩ জনকে কিশোরগঞ্জ জেলার সদর এলাকা হতে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ বুড়িমারী এক্সপ্রেস বামনডাঙ্গা’য় যাত্রা বিরতির দাবিতে গণ অবস্থান ও মানববন্ধন।

সাতক্ষীরায় নৌ পুলিশ ইন্সপেক্টর এর নামে দুর্নীতির অভিযোগ

সাকিবুল ইসলাম আয়নাল
  • প্রকাশিত: বুধবার, ৬ মার্চ, ২০২৪
  • ৩৪৭ বার পড়া হয়েছে

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার বুড়িখালি এলাকায় খাল পেটুয়া কপোতাক্ষ নদী থেকে অবৈধভাবে বালি উত্তোলন করা হচ্ছে। জানা যায় স্থানীয় নাগরিক বুড়িখালি এলাকার মামুন নামে এক ব্যক্তি আইজিপি বরাবর একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। উক্ত অভিযোগে বলা হয় কিছু প্রভাবশালী নেতা এবং বুড়িখালিনী নৌ থানা ইন্সপেক্টরের ইন্ধনে অবৈধভাবে বালি উত্তোলনের কাজ করা হচ্ছে। আমাদের উপকূলীয় অঞ্চল গাবুরা ইউনিয়ন ভেরিবাদের কাজ এর জন্য প্রতিনিয়ত নতুন নতুন বলগেট এসে নৌ পুলিশের ওসিকে টাকা দিয়ে নীল ডুমুর কপোতক্ষ নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে যাচ্ছে। এতে এলাকায় প্রতিনিয়ত নদী ভাঙ্গনের সৃষ্টি হচ্ছে। এলাকার সাধারণ মানুষ বাধা দিলে নৌ পুলিশের ওসিকে বলে বিভিন্ন মামলার ভয় ভীতি দিয়ে ফাঁসিয়ে দেবে বলে হুমকি দেয় প্রভাবশালীরা। এছাড়াও নদীপথে চাঁদা আদায় বরফ পাচার ও সিন্ডিকেটের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে নৌ পুলিশের ওসি আহসান হাবীব। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় এসব টাকার ভাগীদার এবং নৌ থানার ইন্সপেক্টর আহসান হাবিব এর সহযোগী হিসেবে, কাজ করেন রেনু পোনা ব্যবসায়ী কুদ্দুস, চাল ব্যবসায়ী রফিক। এদের মাধ্যমে নীল ডুমুর বাজারে এলাকায় চাঁদাবাজি সিন্ডিগেট তৈরি করে রেখেছেন ইন্সপেক্টর আহসান হাবিব, তার ভয়ে মুখ খুলতে চান না কেউ অদ্য ১৬-১১-২৩ তারিখে বালগেটের টাকার জন্য মামুন নামক ব্যক্তিকে বিভিন্ন ধরনের ভয়-ভীতি দেখায়, পরবর্তী মামুন বাঁচার জন্য তার বন্ধু সাগর মোবাইল নাম্বার (০১৭১৮০৯ ৫২৫০) এর মাধ্যমে ১৫ হাজার টাকা দিয়ে বিষয়টি রফা দফা করেন। এখানেই শেষ নয় অবৈধ ভাবে বালি উত্তোলনে করতে গেলে বলগেট মাসিক ৫ হাজার কোন ক্ষেত্রে ১০০০০ টাকা জোরপূর্বক মামলার ভয় ভীতি দেখিয়ে অফিসার ইনচার্জ নিজে টাকা উত্তোলন করেন এবং নীল ডুমুর বাজারের দোকানদার বিকাশ ব্যবসায়ী গোলাম এর মোবাইলেও লেনদেন হয় মোবাইল নম্বর (০১৭৩০৯৮৬৯০৪) গোলামের দোকান থেকে বিকাশে টাকা উত্তোলনেরও অভিযোগ পাওয়া যায় নৌ ইন্সপেক্টর আহসান হাবিবের নামে। এসব কাজে তাকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করেন শ্যামনগরের বল গেট ওয়াসলে মুহাম্মদ বাবু মোবাইল নাম্বার ০১৭৪৮৯৫২৮৩৩ বাবুর সাথে যোগাযোগ করলে তাৎক্ষণিক ফোনে পাওয়া যায়নি। অভিযোগে আরো বলা হয় নৌ পুলিশ ইন্সপেক্টর আহসান হাবীব পুলিশের ভাব মূর্তি নষ্ট করে ফেলছে, অতএব আপনার নিকট বিনীত অনুরোধ বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখার জন্য এবং বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি ও জানান তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট