1. info@www.prothomdhaka24.com : প্রথম ঢাকা :
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৮:৫১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
গোবিন্দগঞ্জে অটোচালক দুলা মিয়া হত্যার মূল আসামি গ্রেফতার ঈদে চুরির সতর্কতায় ও নিরাপত্তা দিতে ঢাকা কেরানীগঞ্জ পুলিশ । টেকনাফে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের আগুনে পুড়ে ছাই বসত ঘর উখিয়া পালংখালীর জামতলী বাজার হতে র‌্যাবের হাতে অস্ত্র-গুলিসহ এক আরসা সন্ত্রাসী আটক। রাজধানীর মতিঝিল এলাকা হতে আনুমানিক ছয় লক্ষাধিক টাকা মূল্যমানের হেরোইনসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ জেলার সেরা সম্মাননা পেলেন পানছড়ির থানার ওসি শফিউল আজম ঘোলারচরে বিজিবির অভিযানে নৌকার পাটাতনের নীচ থেকে ৩০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার, আটক-১ মায়ানমারে আভ্যন্তরীন যুদ্ধে ব্যাপক খাদ্যসংকট এপার থেকে পাচার হচ্ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীওপার থেকে আসছে ভোলা জেলার লালমোহন এলাকায় চাঞ্চল্যকর পারভিন বেগম (৩৭) হত্যাকান্ডের পলাতক প্রধান আসামি মোঃ রিপনসহ হত্যাকান্ডে সরাসরি জড়িত ০৩ জনকে কিশোরগঞ্জ জেলার সদর এলাকা হতে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ বুড়িমারী এক্সপ্রেস বামনডাঙ্গা’য় যাত্রা বিরতির দাবিতে গণ অবস্থান ও মানববন্ধন।

দক্ষিণ কোরিয়ায় ভারি বর্ষণ ও বন্যায় নিহত বেড়ে ২২

অনলাইন ডেক্স
  • প্রকাশিত: শনিবার, ১৫ জুলাই, ২০২৩
  • ১৩১ বার পড়া হয়েছে

দক্ষিণ কোরিয়ায় ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ২২ জন মারা গেছে এবং আরো ১৪ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা শনিবার জানিয়েছেন। এ পরিস্থিতিতে হাজার হাজার লোককে তাদের বাড়িঘর থেকে সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়া গ্রীষ্মকালীন বর্ষা মৌসুমের শীর্ষে রয়েছে এবং গত তিন দিন ধরে সেখানে ভারি বৃষ্টিপাত হয়েছে। এতে দেশটিতে ব্যাপক বন্যা ও ভূমিধসের সৃষ্টি এবং একটি বড় বাঁধ উপচে পড়েছে।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ভারি বর্ষণে ২২ জন নিহত হয়েছে এবং আরো ১৪ জন নিখোঁজ হয়েছে। বেশিরভাগই ভূমিধসে বা প্লাবিত জলাধারে পড়ে গিয়ে চাপা পড়েছে। ১৬ জন নিহত ও ৯ জন নিখোঁজসহ নিহতদের বেশিরভাগই উত্তর গেয়ংসাং প্রদেশের। মূলত পাহাড়ি এলাকায় ব্যাপক ভূমিধস ভেতরের লোকজনসহ ঘরগুলোকে গ্রাস করেছে।
এর আগে স্থানীয় দুর্যোগ ত্রাণ কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ার ইয়োনহাপ বার্তা সংস্থা ২৪ জনের মৃত্যুর খবর দিয়েছিল। একজন জরুরি সহায়তাকারী ইয়োনহাপকে বলেছেন, সবচেয়ে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় ‘সব ঘরবাড়ি ভেসে গেছে।’

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গোয়েসানের কেন্দ্রীয় কাউন্টির ছয় হাজার ৪০০ জনেরও বেশি বাসিন্দাকে শনিবার ভোরে সরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কারণ গোয়েসান বাঁধটি উপচে পড়া শুরু হয়েছিল এবং কাছাকাছি নিচু গ্রামগুলো পানিতে তলিয়ে যাচ্ছিল।
উত্তর গিয়ংসাং প্রদেশে একটি নদী উপচে পড়লে নিখোঁজদের মধ্যে কয়েকজন ভেসে গেছে বলেও মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

 

এ ছাড়াও ইয়োনহাপ জানিয়েছে, উদ্ধারকর্মীরা উত্তর চুংচেং প্রদেশের চেওংজুতে একটি ভূগর্ভস্থ সুড়ঙ্গে আটকে থাকা প্রায় ১৯টি গাড়ির কাছে পৌঁছনোর জন্য লড়াই করেছেন, যেখানে একজনকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে। এ ছাড়া কতজন লোক তাদের যানবাহনের ভেতরে আটকা পড়েছে তা স্পষ্ট নয় বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে স্থানীয় সরকারের সংস্থাগুলো দেশব্যাপী ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ করায় মৃতের সংখ্যা বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে সংবাদ সংস্থাটি জানিয়েছে।

কোরিয়া রেলরোড কর্পোরেশন অনুসারে, দেশব্যাপী সব নিয়মিত ট্রেন পরিষেবা স্থানীয় সময় দুপুর ২টা পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।তবে উচ্চ-গতির ট্রেনগুলো সম্ভাব্য সময়সূচী সমন্বয় করে চালু ছিল। এ ছাড়া বৃষ্টি ও বন্যার কারণে রাস্তা এবং জাতীয় উদ্যানগুলোর ট্রেইলগুলো বন্ধ হয়ে গেছে।
এদিকে কোরিয়া আবহাওয়া প্রশাসন ভারি বৃষ্টির সতর্কতা জারি করেছে। আগামী সপ্তাহে বুধবার পর্যন্ত আরো বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। আবহাওয়া পরিস্থিতি ‘গুরুতর’ বিপদ ডেকে আনবে বলেও সতর্ক করা হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী হান ডাক-সু কর্মকর্তাদের নদী উপচে পড়া এবং ভূমিধস এড়াতে অনুরোধ করেছেন। পাশাপাশি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে উদ্ধার অভিযানে সহায়তার অনুরোধ জানিয়েছেন


খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম খবর

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট