1. info@www.prothomdhaka24.com : প্রথম ঢাকা :
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৫:৫৪ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
গোবিন্দগঞ্জে অটোচালক দুলা মিয়া হত্যার মূল আসামি গ্রেফতার ঈদে চুরির সতর্কতায় ও নিরাপত্তা দিতে ঢাকা কেরানীগঞ্জ পুলিশ । টেকনাফে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের আগুনে পুড়ে ছাই বসত ঘর উখিয়া পালংখালীর জামতলী বাজার হতে র‌্যাবের হাতে অস্ত্র-গুলিসহ এক আরসা সন্ত্রাসী আটক। রাজধানীর মতিঝিল এলাকা হতে আনুমানিক ছয় লক্ষাধিক টাকা মূল্যমানের হেরোইনসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ জেলার সেরা সম্মাননা পেলেন পানছড়ির থানার ওসি শফিউল আজম ঘোলারচরে বিজিবির অভিযানে নৌকার পাটাতনের নীচ থেকে ৩০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার, আটক-১ মায়ানমারে আভ্যন্তরীন যুদ্ধে ব্যাপক খাদ্যসংকট এপার থেকে পাচার হচ্ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীওপার থেকে আসছে ভোলা জেলার লালমোহন এলাকায় চাঞ্চল্যকর পারভিন বেগম (৩৭) হত্যাকান্ডের পলাতক প্রধান আসামি মোঃ রিপনসহ হত্যাকান্ডে সরাসরি জড়িত ০৩ জনকে কিশোরগঞ্জ জেলার সদর এলাকা হতে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ বুড়িমারী এক্সপ্রেস বামনডাঙ্গা’য় যাত্রা বিরতির দাবিতে গণ অবস্থান ও মানববন্ধন।

বাসচালকেরা একটু সচেতন হলে হয়তো আমার ভাইকে মরতে হতো না

দ্বীন ইসলাম
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ৪ জুলাই, ২০২৩
  • ৭৭ বার পড়া হয়েছে

আমার ভাই যদি ফুটওভার ব্রিজ (পদচারী–সেতু) ব্যবহার করত, তাহলে এমন ঘটনা ঘটত না। বাসের চালকেরাও যদি একটু সচেতন হতো, তবে হয়তো আমার ভাইকে মরতে হতো না। আইল্যান্ড (সড়ক বিভাজক) টপকে পার হওয়া যায়, ওটা তো সে অন্যদের দেখেই শিখেছে। সবাই সহজে এভাবে সড়ক পার হয়, তাই সেও পার হতে চেয়েছিল।’

ছোট ভাই পিয়াস খানকে (২৮) হারানোর যন্ত্রণা নিয়ে কান্নাজড়িত কণ্ঠে কথাগুলো বলছিলেন আজিজা সুলতানা। গতকাল সোমবার ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভারের বিপণিবিতান রাজ্জাক প্লাজার সামনে সড়ক বিভাজক টপকে রাস্তা পারাপারের সময় বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ হারান পিয়াস খান।

তিন ভাই দুই বোনের মধ্যে সবার ছোট ছিলেন পিয়াস খান। ছোটবেলায় মা–বাবা মারা যাওয়ার পর থেকে বড় বোন আজিজা সুলতানার কাছেই বড় হন তিনি। দুলাভাই নজরুল ইসলাম সন্তানের মতো করে যত্ন নিতেন পিয়াসের। পিয়াসের রাজ্জাক প্লাজার কাপড়ের দোকানটিও তাঁদের আর্থিক সহযোগিতায় করা।

আজ মঙ্গলবার সকালে সাভারের পশ্চিম রাজাশন ডেল্টার মোড় এলাকায় আজিজা সুলতানার বাসায় গিয়ে দেখা যায়, স্বজনদের অনেকে বাসার বসার কক্ষে (ড্রইংরুমে) মলিনমুখে বসে আছেন। পাশের একটি কক্ষে ছিলেন আজিজা সুলতানা ও তাঁর স্বামী মো. নজরুল ইসলাম। একটু পর দুজনে চলে আসেন বসার কক্ষে। পিয়াস খানের সঙ্গে বিভিন্ন সময়ের নানা বিষয়ের স্মৃতিচারণা করতে থাকেন দুজনে। গতকালের ঘটনায় বাসের চালকদের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই তাঁদের। তাঁরা চান, এভাবে যেন আর কারও সন্তান, ভাই, বোন ও স্বজনকে হারাতে না হয়। সড়কে আইন মানার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের যথাযথ তদারকি চান তাঁরা।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম খবর

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট